গর্ভকালীন সমস্যা ও স্ত্রী রোগ

গর্ভাবস্থার প্রতি সপ্তাহ: সপ্তাহ ৭

এই অবস্থায় আপনার গর্ভের শিশুটি পরম নিশ্চিন্তে আপনার গর্ভাশয়ে বড়ো হচ্ছে৷ এই অবস্থায় পেটে মোচড় মারা, টান অনুভব করা ইত্যাদি হতে পারে৷

এ সময়ে আপনার কী কী করণীয় এবং আপনার শরীরে কী কী পরিবর্তন আসবে, চলুন তা জেনে নেই।

লক্ষণসমূহ:

  • এই সময়ে গর্ভকালীন সময়ের লক্ষণগুলো পুরোপুরিভাবে প্রকাশ পেতে থাকে৷ যদি আপনি কোনো কারণে উদ্বিগ্ন থাকেন তবে চিকিৎসককে তা জানাতে দেরি করবেন না৷
  • এ সময়ে বিভিন্ন গন্ধের ব্যাপারে অতিরিক্ত সংবেদনশীল হওয়া স্বাভাবিক৷ আপনার শরীরে এস্ট্রোজেন হরমোন বেড়ে যাওয়ার কারণে এমনটি ঘটতে পারে৷ তবে এই ব্যাপারটি স্বল্প সময়ের জন্য হয়।
  • নির্দিষ্ট কিছু খাবারের প্রতি অনীহা আসতে পারে৷ এটিও শরীরে বাড়তি এস্ট্রোজেনের কারণে ঘটে থাকে৷
  • বারবার প্রস্রাব আসাটাও স্বাভাবিক লক্ষণ৷ হরমোনের কিছু পরিবর্তনের কারণে আপনার কিডনিকে অতিরিক্ত পরিমাণে তরল প্রতিশ্রুত করতে হয়৷ ফলে বারবার প্রস্রাবের বেগ আসতে থাকে৷ এসময়ে সুস্থ থাকার জন্য আপনাকে বেশি পরিমাণে পানি পান করতে হবে৷
  • মুখে অতিরিক্ত লালা আসতে পারে৷ এই সমস্যা দূর করার জন্য আপনাকে প্রায়শ ব্রাশ করতে হবে৷ এছাড়া সঠিক খাদ্যাভ্যাস এবং বেশি পরিমাণে পানি পান মুখে লালার পরিমাণ কমাতে সাহায্য করবে৷
  • কোষ্ঠকাঠিন্য৷
  • “হার্টবার্ন” হওয়া।  গলার এবং বুকের নিচের অংশে জ্বলে যাচ্ছে এমন অস্বস্তিকর অনুভূতি হওয়াই “হার্টবার্ন”। এটা অনেকের ক্ষেত্রেই দেখা যায়। সমস্যা বেশি হলে ডাক্তারের পরামর্শ নিতে পারেন। 
  • কিছু কিছু গর্ভবতী এই সময়েও নিজেকে গর্ভবতী অনুভব করেন না৷ এ নিয়ে দুঃশ্চিন্তা করবেন না৷

প্রেগন্যান্সি চেকলিস্ট:

  • পরিমিত খাদ্যাভ্যাস গড়ে তুলুন৷ ডিম, আলু, দই, রঙিন ফল, শাকসবজি, চর্বিবিহীন গোশত খাবার চেষ্টা করুন৷ 
  • পার্টনারের সাথে সংযোগ বাড়ান৷ তার সাথে বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনার করতে পারেন৷ আপনাদের ভবিষ্যতের ব্যাপারে, সন্তানের ব্যাপারে কথা বলতে পারেন৷ পরস্পরকে সময় দিন৷ এতে আপনি মানসিকভাবে ভালো থাকবেন।  
  • বেশি পরিমাণে পানি পানের চেষ্টা করুন৷ 

https://www.babycenter.com/pregnancy/week-by-week/7-weeks-pregnant

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

সম্পর্কিত পোস্ট

আরও আরও...আর পাওয়া যায়নি.