গর্ভকালীন সমস্যা ও স্ত্রী রোগ

গর্ভাবস্থার প্রতি সপ্তাহ: সপ্তাহ ১৬

এই সময় থেকে আপনার আপনার শিশুর নড়াচড়া টের পেতে পারেন৷ বিভিন্ন হরমোনের কারণে এবং রক্ত পরিচলন বেড়ে যাওয়ার জন্য আপনার চেহারায় একটা সুন্দর আভা ফুটে ওঠে৷ আপনি এখন আপনার গর্ভধারণের ৪র্থ মাসে অবস্থান করছেন, অর্থাৎ গর্ভাবস্থার ২য় ট্রাইমেস্টারের শুরুর দিকে আছেন।

এ সময়ে আপনার কী কী করণীয় এবং আপনার শরীরে কী কী পরিবর্তন আসবে, চলুন তা জেনে নেই।

লক্ষণসমূহ:

  • আপনার বাড়ন্ত গর্ভাশয়কে যেসব লিগামেন্ট সাপোর্ট দিচ্ছে তারাই হলো ‘রাউন্ড লিগামেন্ট’। কখনো কখনো আপনার পেটের একপাশে বা উভয় পাশেই তীক্ষ্ণ, ছুরিকাঘাতের মতো তীব্র ব্যথা হতে পারে৷ এটাই রাউন্ড লিগামেন্ট পেইন।   
  • গ্যাস গ্যাস ভাব বা পেট ফেঁপে আছে এমন মনে হওয়া৷ 
  • ব্যাক পেইন বা শরীরের পেছনের অংশে ব্যথা হওয়া৷ যেমন–মেরুদণ্ডে ব্যথা হওয়া৷
  • স্তনের আকৃতিতে পরিবর্তন আসা৷ যেমন–বোঁটায় দাগ দাগ হওয়া, স্তনে হালকা চাপে ব্যথা হওয়া, স্তনে নীল রংয়ের শিরা দেখতে পাওয়া, গোটা গোটা হওয়া ইত্যাদি৷
  • মাঝে মাঝেই অন্যমনষ্ক হয়ে যেতে পারেন। তখন কোনোকিছুতে বা কোনোকিছু করতে গিয়ে মনোযোগ রাখতে কষ্ট হতে পারে।
  • মাথাব্যথা৷

প্রেগন্যান্সি চেকলিস্ট:

  • ডাক্তারের নির্দেশনা অনুযায়ী ২য় ট্রাইমেস্টারের পরীক্ষাগুলো করাতে হবে। এই সময়ে আপনার চিকিৎসক আপনাকে আলফা ফিটোপ্রোটিন নামক পরীক্ষা করার পরামর্শ দিতে পারে৷ এই পরীক্ষার মাধ্যমে আপনার অনাগত সন্তানের মস্তিষ্কজনিত কোনো জন্মগত রোগ থেকে থাকলে সেটা ধরা পড়ে যাবে৷ 
  • এই সময়ে ভারী কাজ, অতিরিক্ত ওজন তোলা–এসব বাদ দিতে হবে৷ 
  • আপনার ওজনের হিসাব রাখুন।
  • ভাজাপোড়া, অধিক মশলাযুক্ত খাবার কিংবা ঝাল জাতীয় খাবার এড়িয়ে চলুন৷
  • বেশি করে পানি পান করুন৷

https://www.babycenter.com/pregnancy/week-by-week/16-weeks-pregnant

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

সম্পর্কিত পোস্ট

আরও আরও...আর পাওয়া যায়নি.