করােনা সংক্রান্ত তথ্য

কাদের কোভিড-১৯ বুস্টার ডোজ নেওয়া উচিত?

আমাদের অনেকেই কোভিড ১৯-এর প্রথম এবং দ্বিতীয় ডোজ নিয়ে ফেলেছি। সম্প্রতি কোভিড ১৯-এর বুস্টার ডোজ নেওয়ার কথাও শোনা যাচ্ছে। ফলে প্রশ্ন আসতে পারে এই বুস্টার ডোজ কাদের নেওয়া উচিত?

উত্তরটি হচ্ছে, ১২ বছর এবং তার ঊর্ধ্বে সবারই বুস্টার ডোজ নেওয়া উচিত।

বুস্টার ডোজ কোভিড ১৯ ইনফেকশনের বিরুদ্ধে সুরক্ষা মজবুত করে এবং করোনা হলেও তা মারাত্মক পর্যায়ে পৌঁছাতে দেয় না, ফলে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই রোগীকে হাসপাতালে নেওয়ার প্রয়োজন হয় না।

বর্তমানে করোনার উচ্চ সংক্রামক ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের ব্যাপক বিস্তার রোধের জন্য আমেরিকার Centers for Disease Control and Prevention (CDC) বলছে যে দুই ডোজ টিকা নেওয়া ১২ বছর অথবা তার বেশি বয়সের সবারই সময় আসামাত্র একটা বুস্টার ডোজ নিয়ে নেওয়া উচিত।

এর বাইরে ৫ থেকে ১১ বছর বয়সি যেসব বাচ্চার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অতিরিক্ত কম তারাও চাইলে দ্বিতীয় ডোজ দেওয়ার ২৮ দিন পরে অতিরিক্ত একটি কোভিড ভ্যাকসিনের ডোজ নিতে পারে।

যেসব লোকের অন্যান্য লোকজনের সাথে প্রচুর মেলামেশা করা লাগে তাদেরকে অবশ্যই বুস্টার ডোজ নেওয়া উচিৎ। যেমন:

  • সম্মুখসারির সেবাদানকারীরা।
  • যারা দীর্ঘদিন ধরে রোগীর সেবা করছেন।
  • যেমন শিক্ষক, স্কুলের কর্মকর্তা কর্মচারী।
  • খাদ্য এবং কৃষি কর্মী।
  • কারখানার কর্মী।
  • গণপরিবহন কর্মী।
  • মুদি দোকানের কর্মী।

তাছাড়া, যারা ঝুকিপূর্ণ এবং ভ্যাকসিন না নেওয়া লোকজনের আশেপাশে থাকেন তাদেরও বুস্টার ডোজ দেওয়া উচিৎ। যেমন: যারা তাদের বৃদ্ধ বাবা-মা বা ছোটো বাচ্চাদের দেখাশোনা করেন।

যাদের বয়স অনেক বেশি এবং যাদের কিছু মারাত্মক রোগ বা দুর্বল শারীরিক অবস্থা রয়েছে তাদের জন্য কোভিড ইনফেকশন অনেক বেশি মারাত্মক আকার ধারণ করতে পারে। এসব রোগীদেরকেও বুস্টার ডোজ গ্রহণ করা উচিৎ।

CDC-এর দেওয়া এসব মারাত্মক রোগগুলোর তালিকায় আছে:

  • ক্যান্সার,
  • দীর্ঘদিনের কিডনি রোগ,
  • দীর্ঘদিনের লিভারের রোগ,
  • দীর্ঘদিনের ফুসফুসের রোগ,
  • ডিমেনশিয়া বা অন্যান্য স্নায়ুঘটিত রোগ,
  • ডায়াবেটিস,
  • ডাউন সিনড্রোম,
  • জটিল হৃদরোগ,
  • এইডস,
  • রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম যাদের (তারা অতিরিক্ত এক ডোজ নেবে, বুস্টার না),
  • গুরুতর মানসিক রোগ,
  • থ্যলাসেমিয়া রোগী,
  • গর্ভবতী,
  • যাদের কোনো অঙ্গ প্রতিস্থাপন করা হয়েছে,
  • স্ট্রোকের রোগী,
  • যক্ষা রোগী,
  • অতিরিক্ত ওজন যাদের।

এর বাইরেও কিছু অবস্থা আছে যেগুলো কোভিড ১৯-এর মাত্রা বাড়িয়ে দিতে পারে। তাই ঝুঁকি সম্পর্কে অনিশ্চিত থাকলে অবশ্যই ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করতে হবে।

তাই, যাদের সুযোগ আছে এবং যারা বুস্টার ডোজ দেওয়ার যোগ্য তাদের অবশ্যই বুস্টার ডোজ দেওয়া উচিৎ।

তথ্যসূত্র: https://www.healthline.com/health-news/who-should-really-consider-getting-a-covid-19-booster 

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

সম্পর্কিত পোস্ট

আরও আরও...আর পাওয়া যায়নি.