গর্ভকালীন সমস্যা ও স্ত্রী রোগ

গর্ভাবস্থার প্রতি সপ্তাহ: সপ্তাহ ১০

এই মুহূর্তে আপনার শিশুর আকার ছোটো কমলালেবুর ন্যায়৷ আপনার গর্ভাশয় ক্রমশ বড়ো হচ্ছে যার কারণে আশেপাশের মাংসপেশির টানে আপনার অস্বস্তিবোধ হতে পারে৷ পেট মোচড় দিতে পারে৷ এসময়ে আপনার গর্ভের শিশুর চোখের বিভিন্ন অংশ তৈরি হতে থাকে৷ দাঁত দেখা যায় এবং মস্তিষ্ক উন্নত হতে শুরু করে৷

এ সময়ে আপনার কী কী করণীয় এবং আপনার শরীরে কী কী পরিবর্তন আসবে, চলুন তা জেনে নেই।

লক্ষণসমূহ:

  • শারীরিক গঠন পরিবর্তন হতে শুরু করে৷ আপনার ওজন কিছুটা বেড়ে যাবে৷ 
  • মুখে লালার পরিমাণ বেড়ে যাওয়া৷ বিশেষত যখন যখন বমি বমি ভাব আসে৷ এটা একেবারেই স্বাভাবিক বিষয় এসময়ের জন্য৷
  • এস্ট্রোজেনের মাত্রা বেড়ে যাওয়ার জন্য সাদাস্রাব বের হবার পরিমাণ বেড়ে যেতে পারে৷ এটা নিয়ে ভয় পাবার কিছু নেই৷ তবে সাদাস্রাবের বদলে যদি অন্য কোনো ধরনের স্রাব দেখতে পান তবে অবশ্যই আপনার চিকিৎসককে জানান৷
  • আপনার বুক, স্তন, পেট জুড়ে নীল রংয়ের শিরা দৃশ্যমান হতে পারে৷ এছাড়াও হাত ও পায়ে স্পষ্ট শিরা দৃশ্যমান হতে পারে যাকে মেডিকেলের ভাষায় “ভেরিকোস ভেইন” বলা হয়৷
  • অনিয়ন্ত্রিত আবেগ৷
  • বমিবমি ভাব৷ 
  • মাথা ঘুরানো৷

প্রেগন্যান্সি চেকলিস্ট:

  • কিছুটা অর্থ সঞ্চয়ের দিকে নজর দিন, যেন প্রসবকালীন সময়ে এ নিয়ে সমস্যার মধ্যে পড়তে না হয়৷ 
  • শান্ত থাকার জন্য ইয়োগা করতে পারেন৷
  • মর্নিং সিকনেস তথা বমি বমি ভাব থেকে বাঁচার জন্য দিনে ৫ থেকে ৬ বার  অল্প করে খেতে পারেন৷ গরম খাবার না খেয়ে ঠান্ডা করে খেতে পারেন৷
  • UTI তথা নারীদের মূত্র সংক্রান্ত রোগ হওয়া বেশ সাধারণ বিষয় এ সময়ে৷ যদি প্রস্রাব করার সময় ব্যথা হয়, তলপেটে ব্যথা হয় বা প্রস্রাব ঘন হয় এবং বাজে গন্ধযুক্ত হয় তবে সেটা দ্রুতই আপনার চিকিৎসককে জানান৷ 

Source: https://www.babycenter.com/pregnancy/week-by-week/10-weeks-pregnant

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

সম্পর্কিত পোস্ট

আরও আরও...আর পাওয়া যায়নি.